» মোটিভেশানঃ অতীত ভুলে সামনে এগিয়ে যাওয়া

প্রকাশিত: ২১. অক্টোবর. ২০১৯ | সোমবার

‘অতীত ভুলে সামনে এগিয়ে যাওয়া’

-প্রকৌশলী আমিনুল ইসলাম

অতীতকে নিয়ে পড়ে থাকলে আপনার বর্তমান ও ভবিষ্যত বিনির্মান হবে না৷ প্রতিটি মানুষেরই অতীত আছে, অতীতের কিছু ভুল কিংবা দূর্ঘটনা নিয়ে ভেবে ভেবে সময় নষ্ট করবেন না৷ আমি অনেক মানুষকে দেখেছি যারা অতীতের কারাগারে বন্দি থাকেন, কেউ কেউতো মাথা উঁচু করে দাঁড়াতেই ভুলে যান। তারা একবারও তাদের জীবনীশক্তির ক্ষমতা সম্পর্কে জানার চেষ্টা করেন না। এই শক্তি দিয়ে ভবিষ্যতে কি কি করতে পারেন, এটিও ভাবে না।
যদি আপনার সাথে অতীতে খারাপ কিছু হয়ে থাকে কিংবা কেউ অন্যায় করে থাকে৷ এইসব মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে আপনি আপনার বর্তমান ও ভবিষ্যতের দিকে নজর দিন। আপনাকে বিশ্বাস করতে হবে, ‘যদি আমি জয়ী না হই, তবে ওরাই জীতে যাবে৷’ সুন্দর ভবিষ্যত গড়তে হলে বর্তমানকে কাজে লাগাতে হবে৷ সময় তার আপন গতিধারায় চলতে থাকে৷ সময়কে আটকে রাখা সম্ভব নয়। একদিন দুইদিন করে সময় চলে কিন্তু চলে যাচ্ছে। কথায় বলে, ‘সময় গেলে সাধন হবে না৷’
সময়ের কাজ সময় করার পাশাপাশি বুদ্ধি খাটিয়ে কাজ করতে হবে৷
পৃথিবীতে প্রতিটি মানুষ যেমনি আলাদা, তেমনি তাদের চিন্তা-চেতনাও আলাদা৷ আপনি কারো মত হওয়ার চেষ্টা করবেন না৷ আপনি আপনার মত শুধু কাজ করে যান, সময়কে মূল্যায়ন করুন৷ কাজের মধ্যে ডুবে থাকুন৷ সফলতা আপনার কাছে দৌড়াতে দৌড়াতে আসবে৷
কখনো কাজের ফলাফল দেখে হতাশ হবেন না৷ হতাশা একটি কঠিন রোগ৷ হতাশা মানুষকে দূর্বল করে দেয়৷ প্রতিনিয়ত নিজেকে পজিটিভ রাখার চেষ্টা করুন৷ মনের মধ্যে গেঁথে রাখুন, আমার কোন প্রতিদ্বন্দ্বী নেই, আমার প্রতিদ্বন্দ্বী আমি নিজেই৷ প্রতিদিন নিজেকে ছাড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন৷ প্রতিদিন নতুন কিছু ভাবতে থাকুন৷ অন্যের মতামত ও সিদ্ধান্ত মোতাবেক কিছু করা থেকে বিরত থাকুন৷ তবে অন্যের মতামতের প্রতি সম্মান দেখাবেন। আপনি যা কিছু করবেন নিজের বিবেক ও বুদ্ধি খাটিয়ে করবেন। আপনাকে বিশ্বাস করতে হবে- আমার সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষমতা আছে৷ আমার গন্তব্যে পৌঁছতে আমি একাই যথেষ্ট৷ আমাকে সৃষ্টিকর্তা সবকিছু দিয়ে পাঠিছেন। আমার কারো উপর নির্ভরশীলতার প্রয়োজন নেই৷
আপনার পক্ষে করা সম্ভব এমন ভাল কাজের একটি লিষ্ট তৈরি করুন৷ একটি ভাল কাজ নিয়মিতভাবে করার পর আরেকটি ভাল কাজে হাত দিন৷ ভাল কাজে মহত্ত্ব আসে, এগিয়ে যাওয়ার অনুপ্রেরণা বাড়িয়ে দেয়। অন্যকে খুশি করার জন্য কিছু করতে যাওয়া বোকামি, কারণ পৃথিবীর সবচেয়ে কঠিন কাজটি হলো অন্যকে খুশি করতে যাওয়া। অন্যকে খুশি করতে গেলে আপনার কাজে উৎসাহ কমে যেতে পারে৷ প্রতিনিয়ত নিজেকে প্রশ্ন করুন, কেন আমি এই কাজটি করছি? যদি কাজটি করার পেছনে আপনার যুক্তি থাকে তবে কাজটি করে যান৷
সবার আগে আপনার লক্ষ্য স্থির করুন৷ লক্ষ স্থির করে এগোলে দ্রুত সফলতা আসে৷ কোন কাজে ব্যর্থ হলে ভেঙে না পড়ে কাজে আরো বেশি মনোযোগী হোন৷ নতুন উদ্যোমে কাজ শুরু করুন৷ ব্যর্থতাকে মেনে নেয়ার মানসিকতা তৈরি করুন৷ আপনারা নিশ্চয় জানেন, আলেকজান্ডার গ্রাহামবেল এক হাজার বার চেষ্টা করে বৈদ্যুতিক বাতি আবিষ্কার করেছিলেন।

ভাল থাকবেন সবাই৷

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৯ বার

Share Button